ব্রেকিং: শপথ নিলেন সংরক্ষিত আসনের নারী এমপিরা শপথ নিলেন সংরক্ষিত আসনের নারী এমপিরা বাংলাদেশিদের জন্য আবারও উন্মুক্ত হচ্ছে আমিরাতের শ্রমবাজার ১৬ হাজার পুলিশ মোতায়েন, শহীদ মিনারে ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা কাল সন্ধ্যা থেকে যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না মেঘনায় গাজাঁ ও ইয়াবাসহ গ্রেফতার যৌন নিপীড়নের দায়ে কেড়ে নেয়া হলো ধর্মযাজকের পদবি মেঘনা উপজেলা হইতে মহিলা সংরক্ষিত আসনে স্বতন্ত্র সেলিনা ইসলাম এমপি নির্বাচিত সংরক্ষিত আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৪৯ নারী এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন

ভিকারুননিসার অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষক বরখাস্ত

জেলা খবর, ব্রেকিং | ২২ অগ্রহায়ন ১৪২৫ | Thursday, December 6, 2018

image-22702-1544020396.jpgওয়ার্ল্ড নিউজ বিডি ডট কম,ঢাকা প্রতিনিধি,০৬ ডিসেম্বর : ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌসসহ তিন শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে গভর্নিং বডি। শনিবার থেকে পূর্ব নির্ধারিত রুটিনে আবার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।  ৬ তারিখের পরীক্ষার সময় পরে জানানো হবে। জানালেন ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান গোলাম আশরাফ তালুকদার।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রীর আত্মহননে অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষককে বরখাস্তের বিষয়ে বৈঠকে বসেন গভর্নিং বডির সদস্যরা।
এর আগে আজ সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের তিন শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার জন্য স্কুলটির পরিচালনা কমিটিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় প্ররোচনাকারী হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ, শাখা প্রধান এবং এক শ্রেণিশিক্ষককে চিহ্নিত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের করা তদন্ত কমিটি।

গভর্নিংবডির চেয়ারম্যান জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বৈঠকে অভিযুক্ত তিন শিক্ষক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখা প্রধান জিনাত আখতার, এবং অরিত্রীর শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গভর্নিং বডির জরুরি সভার এ সিদ্ধান্তের বিষয়টি সবাইকে চিঠি দিয়ে জানানো হবে। আগামী দুই বা তিনদিনের মধ্যে নতুন করে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়া হবে।
উল্লেখ্য, গেল রোববার পরীক্ষা চলাকালে শিক্ষক অরিত্রীর কাছে মোবাইল ফোন পান। মোবাইলে নকল করেছে, এমন অভিযোগে অরিত্রীকে সোমবার তার মা-বাবাকে নিয়ে স্কুলে যেতে বলা হয়। সোমবার তারা স্কুলে গেলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তাদের অপমান করে কক্ষ থেকে বের হয়ে যেতে এবং মেয়ের টিসি (ছাড়পত্র) নিয়ে যেতে বলেন।

পরে এ অপমানে বাসায় গিয়ে অরিত্রী তার কক্ষে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়নায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।