ব্রেকিং: খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে বিভক্ত আদেশ ৫৮টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল যে কারণে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি কোকোর স্ত্রীর আবদারেই মিলন বাদ! বিএনপির সঙ্গে নেই মনির খান চিকিৎসার জন্য রাতে সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন এরশাদ মনোনয়ন বঞ্চিত নেতাদের কাছে শেখ হাসিনার খোলা চিঠি মনোনয়ন না দেওয়ায় বিএনপির গুলশান কার্যালয়ে ভাঙচুর ভিকারুননিসার নতুন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হাসিনা বেগম দ্বৈত আসনে আ.লীগের চূড়ান্ত প্রার্থী যারা শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রেফতার মিকা সিং

অরিত্রীর আত্মহত্যা ভিকারুননিসার অধ্যক্ষসহ ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

জেলা খবর, ব্রেকিং | ২১ অগ্রহায়ন ১৪২৫ | Wednesday, December 5, 2018

image-22608-1543983954.jpgওয়ার্ল্ড নিউজ বিডি ডট কম,ঢাকা প্রতিনিধি,০৫ ডিসেম্বর : রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার ও শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনার বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচণার মামলা করেছেন অরিত্রী অধিকারীর বাবা।

 

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর পল্টন থানায় মামলাটি করেন অরিত্রীর বাবা দিলীপ অধিকারী।

 

পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুজন তালুকদার জানান, ওই মামলার নম্বর ১০। এতে আসামি করা হয়েছে, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখাপ্রধান জিনাত আক্তার ও শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে।

 

অরিত্রী ওই স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। গতকাল সোমবার তাদের শান্তিনগরের বাসা থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

 

নিহতের বাবা দিলীপ অধিকারী বলেন, ‘মেয়ের বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। গত রবিবার পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল। সেখানে তার কাছে শিক্ষিকা মোবাইল ফোনসেট পান। স্কুল শিক্ষিকা অভিযোগ করেছেন, অরিত্রী নকল করেছে। ওই সময়  শিক্ষিকা মোবাইল ফোনসেট রেখে দেন এবং  আমাদের সোমবার বিদ্যালয়ে যেতে বলেন। পরে  মেয়েকে নিয়ে আমরা স্কুলে যাই।’

 

তিনি বলেন, ‘আমরা ভাইস প্রিন্সিপাল ও প্রিন্সিপালের রুমে গিয়ে তাদের ওই অভিযোগ শুনি। জোর হাত করে ক্ষমা চাই। মেয়েও পায়ে ধরে ক্ষমা চায়। কিন্তু তারা কোনো কিছুই শুনতে না চেয়ে বের হয়ে যেতে বলেন। 

 

তিনি আরও বলেন, ‘বের হয়ে যান, কাল এসে টিসি নিয়ে যাবেন। এ সময় দ্রুত বাসায় চলে যায় অরিত্রী। পেছনে পেছনে আমরাও যাই। বাসায় গিয়ে দেখি সে নিজের ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে এবং সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি।পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকেল সাড়ে ৪টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’
অরিত্রীর আত্মহত্যার খবরে সোমবার দিনভর বেইলি রোডে বিক্ষোভ করে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। অভিভাবকরাও শিক্ষকসহ স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলেন। ভিকারুননিসার কিছু শিক্ষকের ব্যবহার শিক্ষকসুলভ নয় বলে অভিযোগ করেন তারা।

 

উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে সোমবার সকাল ১১টার দিকে বেইলি রোডে ভিকারুননিসা নূন স্কুল ও কলেজ ক্যাম্পাসে যান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। সেখানে শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

 

বেলা ১২টার পর স্কুল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের তোপের মুখে পড়েন মন্ত্রী। আন্দোলনরতরা প্রায় ১০ মিনিট তার গাড়ি আটকে রাখেন। এসময় ‘অরিত্রী হত্যার বিচার চাই, অধ্যক্ষের অপসারণ চাই’, ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ নানা স্লোগান দেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

 

অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনা তদন্তে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ভিকারুননিসা কর্তৃপক্ষ দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে প্রভাতী শাখার অধ্যক্ষ জিন্নাত আরাকে।