ব্রেকিং: বাংলাদেশে বেড়াতে এসে এবার ধর্ষণের শিকার পাকিস্তানী কিশোরী অস্ত্র ও গুলি বহন করায় বিমানবন্দরে সাবেক চেয়ারম্যান আটক রতন শিকদার মেঘনা উপজেলা চেয়ারম্যান ও মিলন সরকার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত নুসরাত হত্যায় গ্রেফতার মনি ৫ দিনের রিমান্ডে ‘হিজড়া’ পরিচয়ে ভোটার হতে নেই বাধা বিজিএমই ভবন সিলগালা ২১ এপ্রিল দিবাগত রাত পবিত্র শবে বরাত দানবীর ৬২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ মোস্তাক আহমেদ বগুড়ায় ছুরিকাঘাতে বিএনপি নেতাকে হত্যা নুসরাত হত্যায় সরাসরি জড়িত থাকার দায় স্বীকার নূর উদ্দিন-শামীমের

মাত্র ৪ দিনের ‘গাজর’ ডায়েটে কমবে ওজন

ব্রেকিং, স্বাস্থ্য | ২৭ পৌষ ১৪২৪ | Wednesday, January 10, 2018

gazor.jpgওয়ার্ল্ড নিউজ বিডি ডট কম,স্বাস্থ্য প্রতিনিধি,১০ জানুয়ারি : ওজন কমানোর জন্য আমরা অনেক কিছুই করি। কিন্তু এতকিছুর পরেও ওজন বেড়েই যাচ্ছে। কিন্তু আপনার এমন একটা জিনিস রয়েছে, যা নিয়মিত খেলে ওজন কমতে বাধ্য। আর তা হল গাজর।

একটি বড়মাপের গাজর থেকে ২২ ক্যালোরি শক্তি পাওয়া যায়। চিকিৎসকদের মতে, ১০০ গ্রাম গাজরে রয়েছে কার্বোহাইড্রেট-১০.৬ গ্রাম, প্রোটিন ০.৯ গ্রাম, ফ্যাট ০.২ গ্রাম, আঁশ ১.২ গ্রাম, নিকোটিনিক অ্যাসিড ০. ৬ মিলিগ্রাম, ভিটামিন ‘এ’ ৩১৫০ আইইউ, ক্যালসিয়াম ৮০ মিলিগ্রাম, পটাসিয়াম ১০৮ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ৩০ মিলিগ্রাম, লোহা ১.৫ মিলিগ্রাম।

গাজর সিদ্ধ করে, কাঁচা কিংবা স্যালাড করে যেভাবে খুশি খেতে পারেন আপনি। তবে স্যালাড বানিয়ে খাওয়ার সময় অবশ্যই মেয়োনিজ, তেল অথবা পানির ব্যবহার করবেন না। শুধুমাত্র গাজর, লেবুর রস, ধনে পাতা, কাঁচামরিচ বা গোল মরিচের গুঁড়ো ব্যবহার করতে পারেন।

এই ডায়েট চলাকালীন সময়ে গাজর, গ্রিন টি আর পানি ছাড়া কিছুই খেতে পারবেন না আপনি। খুব বেশি স্বাদ পরিবর্তন করতে ইচ্ছে করলে এক বেলা গাজরের সাথে আপেল মিশিয়ে স্যালাড করে খেতে পারেন।

গাজরের ডায়েট চলাকালীন সময়ে সুস্থ থাকতে চাইলে প্রতিদিন কমপক্ষে ৩ লিটার করে পানি খেতে হবে। পানি কম খেলে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেবে এবং শরীরে সতেজতা থাকবে না। তাই ডায়েটের পাশাপাশি প্রচুর পানি পান করুন।

ডায়েট চলাকালীন সময়ে চা খেতে হলে গ্রীন টি খান। গাজর খাওয়ার আগে অবশ্যই ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে। গাজরের খোসা ছাড়িয়ে নিন সম্ভব হলে। কারণ ইদানিং সবজিতে নানান রকম ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করা হয়। ডায়েট চলাকালীন সময়ে পানি খাওয়া কমাবেন না।

কোনও অসুখ থাকলে বা ওষুধ সেবন করতে হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ডায়েট করবেন না। আর এই ডায়েট ৪ দিন বা খুব বেশি হলে ৫ দিন পর্যন্ত করুন। এক মাসে একবারই করতে পারবেন এই ডায়েট। ডায়েট চলাকালীন সময়ে জিম কিংবা অতিরিক্ত শারীরিক পরিশ্রম করবেন না।