ব্রেকিং: বাংলাদেশে বেড়াতে এসে এবার ধর্ষণের শিকার পাকিস্তানী কিশোরী অস্ত্র ও গুলি বহন করায় বিমানবন্দরে সাবেক চেয়ারম্যান আটক রতন শিকদার মেঘনা উপজেলা চেয়ারম্যান ও মিলন সরকার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত নুসরাত হত্যায় গ্রেফতার মনি ৫ দিনের রিমান্ডে ‘হিজড়া’ পরিচয়ে ভোটার হতে নেই বাধা বিজিএমই ভবন সিলগালা ২১ এপ্রিল দিবাগত রাত পবিত্র শবে বরাত দানবীর ৬২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ মোস্তাক আহমেদ বগুড়ায় ছুরিকাঘাতে বিএনপি নেতাকে হত্যা নুসরাত হত্যায় সরাসরি জড়িত থাকার দায় স্বীকার নূর উদ্দিন-শামীমের

নায়ক রাজ রাজ্জাক আর নেই

বিনোদন, ব্রেকিং, মিডিয়া | ৬ ভাদ্র ১৪২৪ | Monday, August 21, 2017

razzakabnews_95886.jpgওয়ার্ল্ড নিউজ বিডি ডট কম,নিজস্ব প্রতিনিধি,২১ আগস্ট : বাংলা চলচ্ছিত্রের নায়ক রাজ রাজ্জাক আর (ইন্না লিল্লাহি  ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।  আজ সোমবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয় বলে জানান চিকিৎসক। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।  মৃত্যুকালে তিনি  দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে যান। ইউনাইটেড হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হৃদরোগে আক্রান্ত (কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট) হলে আজ বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে পরিবারের সদস্যরা অভিনেতা রাজ্জাককে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তিনি হাসপাতালের চিফ কার্ডিওলজিস্ট ডা. মমিনুজ্জামানের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তবে হাসপাতালে আনার পর তাঁর স্পন্দন, রক্তচাপ কিছু পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। নায়ক রাজের জন্ম ২৩ জানুয়ারি ১৯৪২ সালে।  তার প্রকৃত নাম আব্দুর রাজ্জাক।  ষাটের দশকের মাঝের দিকে তিনি চলচ্চিত্র অভিনেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। ষাটের দশকের বাকি বছরগুলোতে এবং সত্তরের দশকেও তাঁকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের প্রধান অভিনেতা হিসেবে বিবেচনা করা হত।

রাজ্জাক পশ্চিমবঙ্গের (বর্তমান ভারতের) কলকাতার টালিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। কলকাতার খানপুর হাইস্কুলে সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় স্বরসতী পূজা চলাকালীন সময়ে মঞ্চ নাটকে অভিনয়ের জন্য তার গেম টিচার রবীন্দ্রনাথ চক্রবর্তী তাঁকে বেছে নেন নায়ক অর্থাৎ কেন্দ্রীয় চরিত্রে। শিশু-কিশোরদের নিয়ে লেখা নাটক বিদ্রোহীতে গ্রামীণ কিশোর চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই নায়ক রাজের অভিনয়ে সম্পৃক্ততা।

অভিনয় জীবন:

তিনি ১৯৬৪ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে পাড়ি জমান। প্রথমদিকে রাজ্জাক তৎকালীন পাকিস্তান টেলিভিশনে “ঘরোয়া” নামের ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করে দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় হন। নানা প্রতিকূলতা পেরিয়ে তিনি আব্দুল জব্বার খানের সাথে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান। সালাউদ্দিন প্রোডাকশন্সের তেরো নাম্বার ফেকু ওস্তাগড় লেন চলচ্চিত্রে ছোট একটি চরিত্রে অভিনয় করে সবার কাছে নিজ মেধার পরিচয় দেন রাজ্জাক। পরবর্তীতে কার বউ, ডাক বাবু, আখেরী স্টেশন-সহ আরও বেশ ক’টি ছবিতে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয়ও করে ফেলেন। পরে বেহুলা চলচ্চিত্রে তিনি নায়ক হিসেবে ঢালিউডে উপস্থিত হন সদর্পে। তিনি প্রায় ৩০০টি বাংলা ও উর্দু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। পরিচালনা করেছেন প্রায় ১৬টি চলচ্চিত্র।